1. hmgrobbani@yahoo.com : admin :
  2. news@soroborno.com : Md. Rabbani : Md. Rabbani
বুধবার, ০৭ ডিসেম্বর ২০২২, ০৬:৫৬ পূর্বাহ্ন

ক্যারিবীয়দের দ্বিতীয় দফায় বাংলাওয়াশ

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ২৫ জানুয়ারী, ২০২১

ঢাকাতেই সিরিজ জয়। ফলে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হোয়াইটওয়াশ করার সম্ভাবনা এবং স্বপ্ন নিয়েই চট্টগ্রামে পাড়ি জমিয়েছিল বাংলাদেশ দল। মনের ভেতর লুকিয়ে থাকা সেই স্বপ্নটা সত্যি হয়েছে। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে আজ তৃতীয় ম্যাচটিও জিতে ওয়েস্ট ইন্ডিজকে দ্বিতীয় বারের মতো হোয়াইটওয়াশ করেই ছাড়ল তামিম ইকবালের বাংলাদেশ। ওয়ানডেতে ক্যারিবীয়দের প্রথম বারের হোয়াইটওয়াশ করার গৌরবটা বাংলাদেশ দেখিয়েছিল সেই ২০০৯ সালে। ক্যারিবীয়দের মাটিতে সেবারই প্রথম বারের মতো ওয়ানডে সিরিজ জিতে বাংলাদেশ। সঙ্গে ৩-০ ব্যবধানে জিতে ক্যারিবীয়দের মাটিতেই ক্যারিবীয়দের হোয়াইটওয়াশ করার কৃতিত্ব দেখায় সাকিব আল হাসানের দল। ১২ বছর পর এবার ওয়েস্ট ইন্ডিজকে নিজেদের মাটিতে বাংলাওয়াশ করে ছাড়ল বাংলাদেশ।

ওয়েস্ট ইন্ডিজ হোয়াইটওয়াশই হচ্ছে, এটা মূলত নিশ্চিত হয়ে যায় বাংলাদেশের ইনিংস শেষেই। দলের ৪ সিনিয়র ক্রিকেটারের হাফসেঞ্চুরির সুবাদে প্রথমে ব্যাট করে বাংলাদেশ গড়ে ৬ উইকেটে ২৯৭ রানের বিশাল পুঁজি। চট্টগ্রামে বাংলাদেমের জয়টা নিশ্চিত হয়ে যায় তখনই! এই ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাধ্য কি, ২৯৮ রানের লক্ষ্য তাড়া করে জিতে! জিততে পারেওনি জেসন মোহাম্মেদের দল। জয় দূরের কথা, বাংলাদেশি বোলারদের নিয়ন্ত্রিত বোলিংয়ের মুখে সফরকারীরা জয়ের আভাসও ছড়াতে পারেনি।

২৯৮ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারিয়ে ক্যারিবীয়রা অলআউট হয়ে গেছে মাত্র ১৭৭ রানে। বাংলাদেশ ম্যাচটা জিতেছে ১২০ রানের বিশাল ব্যবধানে। বাংলাদেশের পক্ষে হাাফসেঞ্চুরি করেছেন ৪ জনে। অধিনায়ক তামিম ইকবাল, সাকিব আল হাসান, মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ। বিপরীতে ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে হাফসেঞ্চুরি করতে পারেননি একজনও। দুই দলের মধ্যে বড় পার্থক্যটা ছিল এখানেই। ক্যারিবয়ীদের পক্ষে সর্বোচ্চ ৪৭ রান করেছেন রোভমান পাওয়েল। এছাড়া এনক্রুমাহ বোনের ৩১, রেমন রেইফার ২৭, অধিনায়ক জেসন মোহাম্মেদ ১৭, সুনিল অ্যামব্রিস ১৩ এবং কাইল মেয়ার্স ও আলজারি জোসেফ করেছেন সমান ১১ রান করে।

তিনশ ছুঁইছুঁই লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শুরুতেই উইকেট হারিয়ে বসে ওয়েস্ট ইন্ডিজ। ঢাকায় অনুষ্ঠিত সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচের মতো চট্টগ্রামের তৃতীয় ম্যাচটিতেও বল হাতে বাংলাদেশকে প্রথম ব্রেক থ্রু এনে দেন মোস্তাফিজুর রহমান। আাজ ক্যারিবয়ীদের দুই ওপেনারকেই মাত্র ৩০ রানের মাথায় ফিরিয়ে দেন মোস্তাফিজ। ক্যারিবীয়দের মনোবল মূলত ভেঙে পড়ে তাতেই। মোস্তাফিজের চাপে সেই যে চাপে পড়ে যায়, আর কোমর সোজা করে দাঁড়াতেই পারেনি। ধীরেসুস্থে ব্যাট করে বাংলাদেশের জয়টাকে বিলম্বিত এবং হারের ব্যবধানটা কমাতে পেরেছে।

মোস্কাফিজ শুরুটা করলেও প্রতিপক্ষকে বাংলাওয়াশ করার পথে তিনিই দলের বোলার নন। উইকেট প্রাপ্তির বিবেচনায় সেটি সিরিজে আজই প্রথম বারের মতো খেলার সুযোগ পাওয়া মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। তিনি নিয়েছেন ৩ উইকেট। এছাড়া মোস্তাফিজ ও মেহেদী হাসান মিরাজ নিয়েছেন ২টি করে উইকেট। একটি করে উইকেট নিয়েছেন তাসকিন আহমেদ ও সৌম্য সরকার। অন্যটি রানআউট।

এর আগে টস হেরে প্রথমে ব্যাটিং পাওয়া বাংলাদেশের শুরুটাও ভালো ছিল না। দলীয় ১ রানের মাথায় আউট হয়ে যান লিটন দাস। তিনি ডাক মেরে ফেরেন। এরপর নাজমুল হোসেন শান্তও মাত্র ২০ রানে প্যাভিলিয়নে ফেরেন। ফলে ৩৭ রানেই ২ উইকেট হারিয়ে ফেলে বাংলাদেশ। সেখান থেকে দলকে তিনশ’র কাছে নিয়ে গেছেন দলের চতুষ্ট পাণ্ডব তামিম, সাকিব, মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহ। ৪ জনেই পেয়েছেন হাফসেঞ্চুরি।

এর মধ্যে অধিনায়ক তামিম, মুশফিক ও মাহমুদউল্লাহ-এই তিনজনে করেছেন সমান ৬৪ রান করে। তবে তামিম ৬৪ করেছেন ৮০ বলে। মুশফিক ৫৫ বলে। মাহমুদউল্লাহ আরও কম, মাত্র ৪৩ বলে। মাহমুদউল্লাহ ৪৩ বলে ৬৪ করে অপরাজিতও থাকেন। এই তিনজনের তিন ৬৪-র সঙ্গে সাকিব খেলেছেন ৫১ রানের ইনিংস।

ব্যাট হাতে ৫৫ বলে ৬৪ রান এবং গ্লাভস হাতে ৪টি ক্যাচ নেওয়ার সুবাদে ম্যাচসেরার পুরষ্কারটি জিতেছেন মুশফিকুর রহিম। সিরিজ সেরার পুরষ্কারটি গেছে সাকিবের পকেটে। প্রতিপক্ষকে বাংলাওয়াশ করার ম্যাচে বাংলাদেশের জন্য একটা দুঃবাদ, বোলিং করার সময় কুচকিতে টান পড়ায় খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে মাঠ ছেড়েছেন সাকিব আল হাসান। তার চোট গুরুতর নাকি হালকা, সেটি এখনো জানা যায়নি।

ক্যারিবীয়দের দ্বিতীয়বার বাংলাওয়াশ করার মধ্যদিয়ে সিরিজ থেকে ৩০টি ওয়ানডে সুপার লিগ পয়েন্ট অর্জন করেছে বাংলাদেশ। ফলে, ২০২৩ বিশ্বকাপে জায়গা করে নেওয়ার দৌড়টা ভালোভাবেই শুরু করল তামিমের দল।

More News Of This Category
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি