1. hmgrobbani@yahoo.com : admin :
  2. news@soroborno.com : Md. Rabbani : Md. Rabbani
মঙ্গলবার, ০৪ অক্টোবর ২০২২, ০৯:১৪ পূর্বাহ্ন

নৈরাজ্য সৃষ্টির ষড়যন্ত্র রুখতে সতর্ক থাকার নির্দেশ শেখ হাসিনার

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ২ জুন, ২০২২

ঢাকা: ‘সামনে দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন। নির্বাচন আসলে দেশে-বিদেশে নানামুখী ষড়যন্ত্র শুরু হয়। দেশে একটি গোষ্ঠী নৈরাজ্য সৃষ্টির ষড়যন্ত্র করছে। আমাদের সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। আর সামনে ২৫ জুন আমাদের স্বপ্নের পদ্মা সেতুর উদ্বোধন হবে।’- বুধবার (১ জুন) বিকেলে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের বৈঠকে এসব ষড়যন্ত্রের বিষয়ে এভাবেই সবাইকে সতর্ক থাকার নির্দেশনা দেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর সরকারি বাসভবন গণভবনে দলের থিঙ্কট্যাঙ্ক হিসাবে খ্যাত উপদেষ্টা পরিষদের এই বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।


বৈঠকে বহুল প্রতীক্ষিত স্বপ্নের পদ্মা সেতু নিয়ে তৎকালীন সময়ে বিশ্বব্যাংক, ড. ইউনুসসহ সুশীল সমাজের কিছু ব্যক্তিগোষ্ঠীর বিষয়ে আলোচনা করতে গিয়ে পদ্মা সেতুর অর্থায়নে কথিত দুর্নীতির নানা দিক উঠে আসে। ওইসময় নানামুখী তৎপরতা ও ষড়যন্ত্রের কথা তুলে ধরেন ড. মশিউর রহমান ও সাহাবুদ্দিন চুপ্পু। তারা দুজনেই পদ্মা সেতুর কথিত ষড়যন্ত্রের বিষয়ে তাদের তৎকালীন সময়ের বাস্তবিক অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেন।

তারপর নানামুখী ষড়যন্ত্রের পথ মাড়িয়ে স্বপ্নের পদ্মা সেতু বাস্তবায়নের নানামুখী প্রসঙ্গ নিয়ে কথা বলেন আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা। পদ্মা সেতুর অর্থায়ন বন্ধে ও কথিত দুর্নীতির পেছনে কিভাবে ষড়যন্ত্রের জাল বিস্তার করেছিল তার অনেক বিষয়েই তিনি খোলামেলা আলোচনা করেন।


আওয়ামী লীগ সভাপতি বলেন, পদ্মা সেতু নিয়ে অনেক ষড়যন্ত্র হয়েছে। দেশে-বিদেশে ষড়যন্ত্র হয়েছে। সেগুলো মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে। আমার আত্মবিশ্বাস ছিল পদ্মা সেতুতে কোনো দুর্নীতি হয়নি। সে কারণে আমি সত্যের পথ থেকে সরে যাইনি। আমরা সত্যের পথে ছিলাম বলেই প্রমাণিত হয়েছে পদ্মা সেতুতে কোনো দুর্নীতি হয়নি। এখন আমরা নিজের অর্থায়নে পদ্মাসেতু করলাম। যারা বিদ্রূপ করেছিল, রসিকতা করেছিল তারা এখন কি করবে? তারা কি পদ্মা সেতুতে উঠবেন? না কি ভেঙে পড়ে যাবে সেই ভয়ে উঠবেন না? দেখি তারা এখন কি করেন।

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা সত্যের পথে ছিলাম বলেই কানাডার কোর্টে দুর্নীতির অভিযোগ মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে। দুদকে মিথ্যা প্রমাণিত হয়েছে। চুলচেরা বিশ্লেষণে করেই প্রমাণিত হয়েছে, পদ্মা সেতুতে কোনো দুর্নীতি হয়নি। কারণ ওই সময় সুশীল সমাজের তথাকথিত ব্যক্তিরা তাদের পলিটিক্যাল এজেন্ডা বাস্তবায়নে পদ্মা সেতুড় বিষয়ে ষড়যন্ত্র করেছিল। কিন্তু তারা সফল হয়নি। ২৫ জুন পদ্মা সেতু উদ্বোধন করা হবে। আমাদের সবাইকে সতর্ক থাকতে হবে। কারণ একটি গোষ্ঠী নৈরাজ্য সৃষ্টির ষড়যন্ত্র করছে। ষড়যন্ত্র তখনও ছিল, এখনও আছে।


তিনি বলেন, দেশে একটি গোষ্ঠী রাজনৈতিক অস্থিরতা সৃষ্টির করার চেষ্টা করছে। এই গোষ্ঠীকে আমাদের রাজনৈতিকভাবেই মোকাবিলা করতে হবে। আমরা রাজনৈতিক সহনশীলতার পরিচয় দেব। কিন্তু নৈরাজ্য সৃষ্টি করলে রাজনীতির জবাবেই নৈরাজ্যকে দমন করতে হবে। এজন্য আমাদের শক্তি আমাদের সংগঠন। আমাদের সংগঠনকে তৃণমূল থেকে শক্তিশালি করতে হবে। সে লক্ষ্যে সম্মেলনের কাজ চলছে। আমাদের দলকে তৃণমূল পর্যন্ত ভ্যানগার্ডের মতো গড়ে তুলতে হবে।

শেখ হাসিনা বলেন, আমরা তৃণমূল থেকে উন্নয়ন করেছি। আজ উন্নয়নশীল দেশের মর্যাদা পেয়েছি। ড. ইউনুস ষড়যন্ত্র করেছে শুধু গ্রামীণ ব্যাংকের এমডি পদের জন্য। ৭১ বছর বয়স পর্যন্ত ড. ইউনুস বেআইনিভাবে গ্রামীণ ব্যাংকের এমডি থেকেছে। এ নিয়ে মামলা করে সে হেরে যায়। বিশ্বব্যাংক তার কথায় ফান্ড বন্ধ করে দেয়। পরে আমরা নিজস্ব অর্থায়নে করি। দেশের ৯০ ভাগ উন্নয়ন নিজস্ব অর্থায়নে করছি। বাংলাদেশ আজ বদলে গেছে।


বৈঠক শেষে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সাংবাদিকদের বলেন, প্রধানমন্ত্রী সবাইকে সতর্ক ও ঐক্যবদ্ধ থাকার নির্দেশ দিয়েছেন। ছাত্রলীগকে মানববন্ধনের মতো শান্তিপূর্ণ কর্মসূচির নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। কেউ আন্দোলনের নামে সহিংসতা করলে সে অবস্থায় প্রতিহত করা হবে। রাজনৈতিকভাবেই রাজনীতিকে মোকাবিলা করা হবে আর সহিংসতা করলে উদ্ভূত পরিস্থিতিতে আইন প্রয়োগকারী সংস্থা ব্যবস্থা নেবে।

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য তোফায়েল আহমেদ বলেন, অনেক ষড়যন্ত্র হবে। নেতাকর্মীদের গঠনমূলকভাবে সেসব ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করতে হবে। অনেকেই এখন রাজনীতির মাঠে লাশ চায়। তাদের সেই স্বার্থ যেন হাসিল না হয় সে বিষয়ে ছাত্রলীগসহ সকল সংগঠনকে সতর্ক থাকার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।


বৈঠকে আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরসহ উপদেষ্টা পরিষদের সদস্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন আমির হোসেন আমু, তোফায়েল আহমেদ, ড. মশিউর রহমান, প্রফেসর সাইদুর রহমান খান, প্রফেসর আব্দুল খালেক, সাহাবুদ্দিন চুপ্পু, মোজাফফর হোসেন পল্টু, অনুপম সেনসহ অনেকে। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক ড. আবদুস সোবহান গোলাপ, দফতর সম্পাদক ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, উপ-দফতর সম্পাদক সায়েম খান।

More News Of This Category
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি