1. hmgrobbani@yahoo.com : admin :
  2. news@soroborno.com : Md. Rabbani : Md. Rabbani
রবিবার, ০২ অক্টোবর ২০২২, ১১:১৩ অপরাহ্ন

পরমাণু বোমা তৈরির বিপজ্জনক কাছাকাছি ইরান

Reporter Name
  • Update Time : সোমবার, ১৩ জুন, ২০২২

ঢাকা: পারমাণবিক অস্ত্র কর্মসূচি সফলভাবে সম্পন্ন হওয়ার ‘বিপজ্জনক কাছাকাছি’ পৌঁছে গেছে ইরান। ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী নাফতালি বেনেট এমন দাবি করেছেন। কর্মসূচি সফলভাবে শেষ হলে ইরান পরমাণু বোমা তৈরি করতে সক্ষম হবে বলে সতর্ক করেছেন তিনি।


যুক্তরাজ্যের টেলিগ্রাফ সংবাদপত্রকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে নাফতালি বেনেট বলেন, ‘পশ্চিমা মিত্ররা ইরানের পারমাণবিক শক্তিতে পরিণত হওয়ার হুমকির ব্যাপারে জেগে উঠেছে।’ ইসরাইলি এই নেতা ব্রিটেন এবং অন্যান্য পশ্চিমা শক্তিদের তেহরানের উপর চাপ বজায় রাখার আহ্বান জানিয়েছেন।

সাক্ষাৎকারে ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘ইরান উচ্চহারে ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করছে। দেশটি পরমাণু অস্ত্র তৈরির বিপজ্জনক কাছাকাছি চলে গেছে। পশ্চিমের কোনো চাপ ছাড়াই ইরান খুব শিগগিরই পারমাণবিক বোমা হাতে নিতে পারে। এখন বিশ্বকে দৃঢ় অবস্থান নিতে হবে। ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচি বন্ধ না হওয়া পর্যন্ত থামা যাবে না।’


ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রীর এসব মন্তব্য এমন এক সময় এসেছে যখন তেহরান ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধকরণের মাত্রা ৬০ শতাংশে উন্নীত করেছে। পারমাণবিক বোমা তৈরি করার জন্য শতকরা ৯০ ভাগের বেশি মাত্রার ইউরেনিয়াম সমৃদ্ধ করতে হয়। এ মাত্রা স্পর্শ করার বেশ কাছাকাছি পৌঁছে গেছে ইরান।

উল্লেখ্য, ২০১৫ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামার সময়ে ইরানসহ ছয় বিশ্বশক্তি দেশ এক চুক্তিতে সম্মত হয়। এ চুক্তির আওতায় পরমাণু সমৃদ্ধকরণের মাত্রা ৮ শতাংশের কম রাখতে রাজি হয় তেহরান। এছাড়া ইরানের পরমাণু স্থাপনায় নিয়মিত পরিদর্শনের সুযোগ পায় আন্তর্জাতিক মহল। তার পরিবর্তে ইরানের ওপর কড়া শাস্তিমূলক নিষেধাজ্ঞা তুলে নিতে সম্মত হয় পশ্চিমা বিশ্ব।


তবে ২০১৮ সালে জয়েন্ট কম্প্রিহেনসিভ প্ল্যান অব অ্যাকশন (জেসিপিওএ) নামের ওই চুক্তি থেকে যুক্তরাষ্ট্রকে প্রত্যাহার করে নেন তৎকালীন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এর পরপর ফের ইরানের উপর একের পর এক অবরোধ আরোপ করতে থাকে ওয়াশিংটন। পরে কোণঠাসা হয়ে পড়া ইরান পরমাণু কর্মসূচি আরও বিস্তৃত করা শুরু করে। জেসিপিওএ চুক্তি ফের কার্যকর করতে মরিয়া চেষ্টা চালাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্রের বাইডেন প্রশাসন।

এদিকে চলতি সপ্তায় ইরানের পরমাণু স্থাপনা থেকে ২৭টি মনিটরিং ক্যামেরা সরিয়ে নিয়েছে ইরান। এসব ক্যামেরা দিয়ে ইরানের পারমাণবিক কর্মসূচির উপর নজরদারী করত আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়। এসব ক্যামেরা সরিয়ে নেওয়ার ঘটনা মারাত্মক সিদ্ধান্ত বলে সমালোচনা করেছে যুক্তরাষ্ট্র।


ইসরাইল বরাবর আশঙ্কা প্রকাশ করে বলছে, ইরানের হাতে পরমাণু অস্ত্র থাকলে আঞ্চলিক নিরাপত্তা হুমকির মুখে পড়ে। ইরানকে অস্ত্র তৈরি থেকে নিবৃত্ত করতে পশ্চিমা বিশ্বকে চাপ দিচ্ছে ইসরাইল। পশ্চিমা বিশ্ব উদ্যোগ নিতে ব্যর্থ হলে ইসরাইল নিজেই ইরানকে শায়েস্তা করতে পারবে বলে প্রায়ই হুমকি দিয়ে থাকেন ইসরাইলি নেতারা।

More News Of This Category
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি