1. hmgrobbani@yahoo.com : admin :
  2. noushaduddin16@gmail.com : nowshad Uddin : nowshad Uddin
  3. news@soroborno.com : Md. Rabbani : Md. Rabbani
  4. nooruddinrasel@yahoo.com : nooruddin rasel : nooruddin rasel
বুধবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৯:০২ অপরাহ্ন

যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে এই দিনে প্রথম গণআদালত বসে নেত্রকোনায়

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২২ ডিসেম্বর, ২০২০
মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ডা. আখলাখ হোসাইন

ডিস্ট্রিক করেসপন্ডেন্ট

নেত্রকোনা: মানবতাবিরোধী যুদ্ধাপরাধীদের বিচারে বাংলাদেশে প্রথম গণআদালত বসেছিল নেত্রকোনার মোহনগঞ্জের রোইয়ার মাঠে। ১৯৭১ সালের ২২ ডিসেম্বর এই গণআদালতে রাজাকারদের বিচার ও রায় কার্যকর করা হয়।

মুক্তিযুদ্ধকালে মোহনগঞ্জের ছয়টি গ্রামের পাঁচশ’র বেশি হিন্দু বাড়ি দখল করে রাজাকাররা। অগ্নিসংযোগ, হত্যা, ধর্ষণ ও লুটপাট চালায় নির্বিচারে। দীর্ঘ যুদ্ধ শেষে ৮ ডিসেম্বর ভোরে মোহনগঞ্জে উত্তোলন করা হয় স্বাধীন বাংলার পতাকা। এ সময় নয়জন রাজাকারকে আটক করেন মুক্তিযোদ্ধারা। সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় গণআদালতে বিচার হবে তাদের।

২২ ডিসেম্বর হাজারও জনতার উপস্থিতিতে গণআদালতের কার্যক্রম শুরু করেন মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ডা. আখলাখ হোসাইন। বীর মুক্তিযোদ্ধা গোলাম এরশাদুর রহমানও আদালত পরিচালনায় উপস্থিত ছিলেন। উপস্থিত জনতা চিৎকার করে রাজাকারদের মৃত্যুদণ্ড ঘোষণা করেন। ওই রাতেই তাদের মৃত্যুদণ্ড কার্যকর করা হয়।

মাঠটিতে একটি ঘৃণাস্তম্ভ তৈরি করে মৃত্যুদণ্ডপ্রাপ্ত রাজাকারদের নামের তালিকা প্রদর্শনের দাবি জানিয়েছেন মুক্তিযোদ্ধারা। নেত্রকোনা জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের সাবেক সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা নুরুল আমিন বলেন, ঐতিহাসিক এ মাঠটি সংরক্ষণ করে মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাস রক্ষায় এগিয়ে আসবে প্রশাসন, এমনটাই আশা মুক্তিযোদ্ধা মহল ও মোহনগঞ্জবাসীর।

More News Of This Category
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি