1. hmgrobbani@yahoo.com : admin :
  2. noushaduddin16@gmail.com : nowshad Uddin : nowshad Uddin
  3. news@soroborno.com : Md. Rabbani : Md. Rabbani
  4. nooruddinrasel@yahoo.com : nooruddin rasel : nooruddin rasel
মঙ্গলবার, ১৯ অক্টোবর ২০২১, ০৯:০০ পূর্বাহ্ন

সাকিবকে নিয়ে আইপিএলে কলকাতার শুভ সূচনা

Reporter Name
  • Update Time : রবিবার, ১১ এপ্রিল, ২০২১

এবারের আইপিএলে সাকিব আল হাসানের বোলিংয়ে সূচনাটা হয়েছে দুর্দান্ত। পাওয়ার প্লেতে বোলিং করতে এসে প্রথম ওভারে মাত্র এক রান খরচায় নিয়েছেন এক উইকেট। পরে অবশ্য দুর্দান্ত এই ধারাটা অব্যাহত থাকল না। তবে তার দল কলকাতা নাইট রাইডার্স ঠিকই জয় নিয়ে মাঠ ছেড়েছে। সানরাইজার্স হায়দ্রাবাদের বিপক্ষে চলতি আইপিএলের প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেছিল কলকাতা। প্রথম ম্যাচে আজ ১০ রানের জয় পেয়েছে ইয়ান মর্গানের দল।

সুনীল নারিনকে উপেক্ষা করে কলকাতা সাকিবকে একাদশে নেয় কিনা সেটা ছিল বড় প্রশ্ন। জল্পনা শেষে আজ সাকিবকে নিয়েই মাঠে নেমেছিল ফ্র্যাঞ্চাইজিটি। প্রথম ম্যাচটাতে অবশ্য খুব একটা আলো ছড়াতে পারলেন না বাংলাদেশি তারকা। ব্যাট হাতে সাত নম্বরে যখন নামলেন দলের ইনিংসের বাকি তখন ১৪ বল। এই ১৪ বলের ৫টি খেলার সুযোগ পেয়ে ৩ রান করে ইনিংসের শেষ বলে আউট হয়েছেন সাকিব।

অবশ্য যে সময় ব্যাটিংয়ে নামলেন তখন নিজে হাঁকানোর চেয়ে অপর প্রান্তে দুর্দান্ত ব্যাটিং করতে থাকা দিনেশ কার্তিককে স্ট্রাইক দেওয়াই বড় দায়িত্ব ছিল সাকিবের, বাংলাদেশি তারকা সেটা ভালোভাবেই পালন করতে পেরেছেন। কলকাতার ব্যাটিংয়ের নায়ক আজ নিতিশ রানা।

সাকিবকে নিয়ে আইপিএলে কলকাতার শুভ সূচনা

গত মৌসুমে ওপেনিং একটা গ্যারাকল হয়ে ছিল কলকাতার। তরুণ শুভমান গিলের সঙ্গে সুনীল নারিন ওপেন করে বারবার ব্যর্থ হয়েছেন। এবার নারিনের অনুপস্থিতিতে গিলের সঙ্গে ওপেনিংয়ের দায়িত্ব নিতিশ রানার। প্রথম পরীক্ষাতেই লেটার মার্ক পেলেন রানা। ৫৬ বলে ৯টি চার ৪টি ছক্কায় ৮০ রান করে তিনিই কলকাতাকে বড় রানের দিকে টেনেছেন। তিনে নেমে রাহুল ত্রিপাতি ২৯ বলে ৫৩ ও শেষ দিকে দিনেশ কার্তিক ৯ বলে ২২ করে বড় রান নিশ্চিত করেছেন। নির্ধারিত ২০ ওভারে ৬ উইকেট হারিয়ে ১৮৭ রান তোলে কলকাতা।

পরে বোলিংয়ে নেমে শুরুতেই হায়দ্রাবাদের অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নারকে ফেরান তরুণ কৃষ্ণা। সাকিব বোলিং পান ইনিংসের তৃতীয় ওভারে। প্রথম বলেই ঋদ্ধিমান সাহাকে ফেরান বাংলাদেশি স্পিনার। প্রথম ওভারে দিয়েছেন মাত্র এক রান। তারপর ঝড়ো গতিতে রান তুলতে থাকা জনি বেয়ারস্টো ও মানিশ পান্ডে জুটিকে আটকাতে সাকিবকে টানা বোলিং করিয়ে গেছেন কলকাতা অধিনায়ক মর্গান। দুর্দান্ত এই জুটির বিপক্ষে সাকিব রান যে খুব বেশি খরচ করেছেন তেমনটা নয়, তবে উইকেটও বের করতে পারেননি। শেষমেস তার বোলিং পরিসংখ্যান চার ওভারে ৩৪ রান খরচায় ১ উইকেট।

১৩তম ওভারের শেষ বলে ভয়ঙ্কর জনি বেয়ারস্টোকে ফেরান প্যাট কামিন্স। তারপর ওভারপ্রতি রান লাগত ১১’র বেশি। বাকিরা সেই চাপটা আর জয় করতে পারেননি। মনিশ পান্ডে শেষ পর্যন্ত ধরে ছিলেন ঠিকই, কিন্তু ম্যাচ বের করতে পারেননি।

২০ ওভারে ৫ উইকেট হারিয়ে ১৭৭ রানে থেমেছে হায়দ্রাবাদের ইনিংস। পান্ডে ৪৪ বল খেলে ২টি চার ৩টি ছয়ে ৬১ রান করে শেষ পর্যন্ত অপরাজিত ছিলেন। বেয়ারস্টো ৪০ বলে ৫ চার ৩ ছয়ে ৫৫ রান করেন। কলকাতার হয়ে একমাত্র বোলার হিসেবে দুই উইকেট পাওয়া কৃষ্ণা চার ওভারে রান খরচ করেছেন ৩৫।

More News Of This Category
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি