1. hmgrobbani@yahoo.com : admin :
  2. noushaduddin16@gmail.com : nowshad Uddin : nowshad Uddin
  3. news@soroborno.com : Md. Rabbani : Md. Rabbani
  4. nooruddinrasel@yahoo.com : nooruddin rasel : nooruddin rasel
শনিবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০৩:১১ পূর্বাহ্ন

সিলেট নগরীতে হঠাৎ বেড়েছে মোটরসাইকেল চুরি

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২১ এপ্রিল, ২০২১

সিলেট নগরীতে হঠাৎ করে বেড়েছে মোটরসাইকেল চুরির ঘটনা। গত ৬ মাসে শুধু নগরীর উপশহর থেকে অন্তত ২০-২৫টি মোটরসাইকেল চুরির কথা জানিয়েছেন ২২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সালেহ আহমদ সেলিম। আর গত দুই দিনে উপশহর, রায়নগর, টিলাগড় ও শেখঘাট এলাকা থেকে ৫টি মোটরসাইকেল চুরির খবর ফুটে এসেছে বিভিন্ন মাধ্যমে। এসব ঘটনায় পুলিশ বলছে, চুরি দমনে রাতের বেলায় বাড়ানো হবে টইল।  

জানা গেছে, গতকাল মঙ্গলবার তারাবির নামাজের সময় (রাত ৮টা থেকে ৯টার ভেতরে) উপশহরের সি ব্লকের মেইন রোডের ১৬ নাম্বার বাসা থেকে এক যুবলীগ নেতার মোটরসাইকেল চুরির ঘটনা ঘটে। চুরি হওয়া মোটরসাইকেল হিরো গ্লামার লাল রঙ এর সিলেট-হ ১৪-৩১৩৮ নাম্বারের।  ওই মোটরসাইকেলটি সিলেট জেলা যুবলীগ নেতা ও জকিগঞ্জের কলাকুটা গ্রামের কাজী শাহজান সাজুর। বর্তমানে তিনি উপশহরের সি ব্লকের ১৬ নাম্বার বাসায় বসবাস করেন। রোজা মাসে প্রতিদিনের ন্যায় তিনি গতকাল রাত ৮টার দিকে মসজিদে তারাবির নামাজ পড়তে যান। রাত ৯টার দিকে মসজিদ থেকে বাসায় ফিরে গ্যারেজে দেখতে পান তার মোটরসাইকেলটি নেই। এ ব্যাপারে আজ বুধবার দুপুরে তিনি হযরত শাপরাণ থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।  এর দুই দিন আগে উপশহরের ডি-ব্লক মসজিদের সামনে নামাজের সময় মোটরসাইকেলের তালা ভেঙ্গে চুরির সময় এক চোর ধরা পড়ে জনতার হাতে। পরে তাকে মারপিট করে ছেড়ে দেয়া হয় বলে জানা গেছে।   

এদিকে মঙ্গলবার রাতেই নগরীর রায়নগর থেকে আরেকটি মোটরসাইকেল চুরির খবর পাওয়া গেছে। চুরি যাওয়া ওই মোটরসাইকেলটি রায়নগরের জমসেদ সিরাজ নামের এক ব্যবসায়ীর। মোটরসাইকেল দুটির খোঁজ পেতে সিসি ক্যামেরা চেক করতে তারা গতকাল রাতেই যান নগরীর ২২ নং ওয়ার্ডের কাউন্সিলর সালেহ আহমদ সেলিমের উপশরের অফিসে। কিন্তু ক্যামেরায় ছবিগুলো ঘোলাটে দেখায় কাউকে সনাক্ত করা যায়নি। চুরির বিষয়ে গতকাল রাতেই কাউন্সিলর সালেহ আহমদ সেলিম তার ফেসবুক একাউন্টে একটি স্ট্যাটাস দেন।ওই স্ট্যাটাসের কমেন্টসে যুবলীগ নেতা আমিনুল ইসলাম সুহেল লিখেন ওই রাতেই টিলাগড় থেকে আরেকটি মোটরসাইকেল চুরি হয়েছে। অভি দিপ নামের আরেকজন লিখেন নগরীর শেখঘাট থেকেও একটি মোটরসাইকেল ঘটনা ঘটেছে।      

উপশহরে চুরি বৃদ্ধির বিষয়ে জানতে চাইলে কাউন্সিলর সালেহ আহমদ সেলিম বলেন, গত ৬ মাসে অন্তত ২০-২৫টি মোটরসাইকেল চুরি হয়েছে। রোজা মাসে তারাবির নামাজের সময় চুরির উপদ্রব বাড়ছে বলে জানান তিনি। উপশহরে সিসি ক্যামেরায়  চোর শনাক্ত করা যাচ্ছে না কেন এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ক্যামেরার রেজুলেশন কম হওয়ায় ছবিগুলো ঘুলাটে হয়। তাই ছবি কম চেনা যায়। এদিকে উপশহরের ২৬টি ক্যামেরার মধ্যে ঝড় তুফানে ৫-৬টি কাজও করছে না।ভালো ক্যামেরা স্থাপনের জন্য তিনি মেয়র আরিফুল হক চৌধুরীর প্রতি আহবান জানান। এছাড়া উপশহরে রাতের বেলা বিদ্যুতের অনেক লাইট কাজ করছে না বিষয়ে তিনি বলেন, করোনায় মেরামতের জন্য সবসময় লোক পাওয়া যায় না। অতিদ্রুত লাইট মেরামত করা হবে বলে নিশ্চিত করেন তিনি। উপশহরের বাসিন্দারা বলছেন, অন্তত পক্ষ্যে লাইটগুলো ভালো করে কাজ করলে চোররা চুরি করতে সাহস কম পেত।      

শাহপরাণ থানা এলাকায় মোটরসাইকেল চুরি প্রসঙ্গে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা সৈয়দ আনিসুর রহমান বলেন, রাতের বেলা চুরি প্রবণ এলাকায় টইল বৃদ্ধি করা হবে।এখন থেকে মোটরসাইকেল নিয়ে  কাউকে সন্দেহ করা হলে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। তবে চুরি হলে অনেকে থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করেন না বলে জানান তিনি। তিনি বলেন, দুই দিন আগে উপশহরে একটি মোটরসাইকেল চুরি হওয়ার পর মোটরসাইকেলের মালিক থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করেননি। আমরা ওই ব্যক্তির সাথে যোগাযোগ করলেও তিনি তার সাইকেলের কাগজ নেই বলে অভিযোগ দায়ের করতে চাননি। ওসি বলেন, মোটরসাইকেলের কাগজ না থাকলেও অভিযোগে কোন সমস্যা নেই। ভবিষ্যতে এমন কিছু ঘটলে থানায় এসে অভিযোগ দায়ের করতে আহবান জানান তিনি।

More News Of This Category
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি