1. hmgrobbani@yahoo.com : admin :
  2. noushaduddin16@gmail.com : uddin : uddin uddin
  3. news@soroborno.com : Md. Rabbani : Md. Rabbani
  4. nooruddinrasel@yahoo.com : nooruddin rasel : nooruddin rasel
  5. sultansumon2050@gmail.com : Sultan Sumon : Sultan Sumon
সোমবার, ২৬ জুলাই ২০২১, ১০:৪৮ অপরাহ্ন

‘এক প্রকল্প শেষ না করলে অন্য প্রকল্পে একই প্রতিষ্ঠানকে কাজ নয়’

Reporter Name
  • Update Time : মঙ্গলবার, ২৪ নভেম্বর, ২০২০

স্টাফ করেসপনডেন্ট

ঢাকা: সরকারি বিভিন্ন প্রকল্পের কাজ মুষ্টিমেয় কিছু ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সীমাবদ্ধ রাখার প্রবণতা থেকে সরে আসতে নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলছেন, কোনো প্রতিষ্ঠান একটি প্রকল্পে নিয়োজিত থাকলে সেই প্রকল্পের কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত যেন তারা নতুন কোনো প্রকল্পে কাজ না পায়। একই প্রতিষ্ঠান একাধিক কাজে নিয়োজিত থাকলে প্রকল্প বাস্তবায়ন প্রক্রিয়া বিলম্বিত হতে পারে— এমন আশঙ্কা থেকে প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশনা দিয়েছেন।

মঙ্গলবার (২৪ নভেম্বর) জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশনা দিয়েছেন। রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের (এনইসি) সম্মেলন কক্ষে এই বৈঠকে গণভবন থেকে ভার্চুয়াল পদ্ধতিতে যুক্ত হয়ে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপারসন শেখ হাসিনা। পরে একনেক বৈঠক নিয়ে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন পরিকল্পনা বিভাগের সিনিয়র সচিব আসাদুল ইসলাম।

একনেক বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী বলেন, একক বা মুষ্টিমেয় ঠিকাদার প্রতিষ্ঠান যখন একাধিক প্রকল্পের কাজ পায়, তখন প্রকল্পের বাস্তবায়ন বিলম্বিত হয়। এজন্য কতগুলো প্রতিষ্ঠান কাজ করছে, কী কী প্রকল্পের কাজ করছে, কোন প্রতিষ্ঠান কতটা প্রকল্পে কাজ করছে এবং সময়মতো কাজ শেষ করেছে কি না— এগুলোর একটি তালিকা তৈরি করতে হবে।

তিনি আরও বলেন, সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়গুলো এই তালিকা করে প্রকাশ করবে। বিশেষ করে রাস্তাঘাটসহ বিভিন্ন অবকাঠামো উন্নয়ন সংক্রান্ত প্রকল্পের ক্ষেত্রে এরকম ঘটনা ঘটছে। এজন্য কোনো প্রতিষ্ঠান যদি কাজ পায়, সেই কাজ শেষ না হওয়া পর্যন্ত যেন নতুন কাজ না পায়, সেটি নিশ্চিত করতে হবে। বিজ্ঞাপন

ব্রিফিংয়ে পরিকল্পনা সচিব বলেন, মূলত দু’টি উদ্দেশ্যে প্রধানমন্ত্রী এ নির্দেশনা দিয়েছেন— নতুন নতুন ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান যেন গড়ে উঠতে পারে এবং দ্বিতীয়ত, কাজগুলো সময়মতো যেন বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়।

অনুমোদন পাওয়া খুরুশকুল আশ্রয়ণ প্রকল্পে জলবায়ু উদ্বাস্তু এবং বিমানবন্দর সম্প্রসারণে যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, তাদের অগ্রগাধিকার দিতে নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। সচিব বলেন, ওখানে যারা উদ্বাস্তু ও বিমানবন্দরের কারণে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন, তাদের তালিকা রয়েছে। এই তালিকাকে অগ্রাধিকার দিতে হবে, যেন সরকারি বাসভবন হচ্ছে বলে বাইরে থেকে এসে কেউ সুযোগ না নিতে পারে। বিজ্ঞাপন

সচিব বলেন, এছাড়া রাস্তা টেকসই করতে এবং রাস্তা থেকে পানি নেমে যাওয়া ব্যবস্থা রাখতে নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। রাস্তা ধারে পর্যাপ্ত গাছ লাগাতে ও বিশ্রামাগার রাখতে বলেছেন, যেন যানবাহন চালকরা প্রয়োজনে বিশ্রাম নিতে পারেন।

More News Of This Category
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি