1. hmgrobbani@yahoo.com : admin :
  2. noushaduddin16@gmail.com : uddin : uddin uddin
  3. news@soroborno.com : Md. Rabbani : Md. Rabbani
  4. nooruddinrasel@yahoo.com : nooruddin rasel : nooruddin rasel
  5. sultansumon2050@gmail.com : Sultan Sumon : Sultan Sumon
মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ১১:১৪ পূর্বাহ্ন

ফুল দিতে শহীদ মিনারে ৫ জনের বেশি প্রবেশ নয়

Reporter Name
  • Update Time : বৃহস্পতিবার, ১৮ ফেব্রুয়ারী, ২০২১

মহান শহীদ দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসে একজন ব্যক্তিও মাস্ক ছাড়া শহীদ মিনারে প্রবেশ করতে পারবেন না। দল পর্যায়ে সর্বোচ্চ পাঁচজন এবং ব্যক্তি পর্যায়ে একসঙ্গে দুজনের বেশি এখানে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না।

আজ বৃহস্পতিবার বিকেলে ঢাকার কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে নিরাপত্তাব্যবস্থা পরিদর্শন শেষে ঢাকা মহানগর পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম এসব কথা বলেন।

ডিএমপি কমিশনার বলেন, ‘বিশেষ পরিস্থিতিতে আমরা এবার আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবস পালন করতে যাচ্ছি। চারদিকে করোনা পরিস্থিতি, ভ্যাকসিনেশন চলছে, তাতে ভীতি রয়েছে। একজন ব্যক্তিও মাস্ক ছাড়া শহীদ মিনারে প্রবেশ করতে পারবেন না। দল পর্যায়ে সর্বোচ্চ পাঁচজন এবং ব্যক্তি পর্যায়ে একসঙ্গে দুজনের বেশি এখানে প্রবেশ করতে দেওয়া হবে না। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ও শহীদ মিনার এলাকায় যান চলাচল বরাবরের মতো নিয়ন্ত্রণ করা হবে। সবার নিরাপত্তা নিশ্চিত করা হবে।’

দিবসটিকে ঘিরে নিরাপত্তাব্যবস্থা সম্পর্কে মহানগর পুলিশপ্রধান বলেন, এবার পর্যাপ্ত নিরাপত্তাব্যবস্থা, বলা যায় তিন স্তরের নিরাপত্তাব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। এতে র‌্যাবও থাকবে। শহীদ মিনার ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় এলাকার প্রতিটি ইঞ্চি জায়গা সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে নজরদারি করা হবে। এ জন্য ডিএমপি কন্ট্রোল রুম থেকে তা মনিটরিং করা হবে। পাশাপাশি বোমা নিষ্ক্রিয়কারী ইউনিট, সোয়াটসহ অন্য ইউনিটগুলো সক্রিয় থাকবে।

শহীদ দিবস ঘিরে জঙ্গি কার্যক্রমের ওপর নজরদারি রাখা হচ্ছে কি না, জানতে চাইলে ঢাকার পুলিশ কমিশনার শফিকুল ইসলাম বলেন, সাধারণত এ ধরনের দিবসগুলো উপলক্ষে আন্তর্জাতিক দৃষ্টি আকর্ষণের জন্য জঙ্গিরা ছোট ঘটনা ঘটিয়ে হলেও দৃষ্টি আকর্ষণের চেষ্টা করে। শহীদ দিবস বাঙালির আবেগের একটি বড় জায়গা। এখানে ছোট্ট একটি ঘটনা ঘটাতে পারলেও আন্তর্জাতিক দৃষ্টি আকর্ষণ করা যায়। জঙ্গি কার্যক্রম বা গতিবিধি নজরদারির জন্য সাইবার ইউনিটগুলো সক্রিয় রয়েছে। পুলিশের সর্বোচ্চ প্রস্তুতি আছে। জঙ্গিরা কোনো ঘটনা ঘটানোর সাহস পাবে না। 

অনুষ্ঠানস্থলে কাউন্টার টেররিজম অ্যান্ড ট্রান্সন্যাশনাল ক্রাইমের প্রধান মনিরুল ইসলাম, ডিবির প্রধান এ কে এম হাফিজ আক্তার, ডিএমপির অতিরিক্ত কমিশনার (ক্রাইম অ্যান্ড অপস) কৃষ্ণপদ রায়, রমনা বিভাগের উপকমিশনার সাজ্জাদুর রহমান, ডিএমপির গণমাধ্যম ও জনসংযোগ বিভাগের অতিরিক্ত উপকমিশনার ইফতেখায়রুল ইসলামসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

More News Of This Category
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি