1. hmgrobbani@yahoo.com : admin :
  2. noushaduddin16@gmail.com : uddin : uddin uddin
  3. news@soroborno.com : Md. Rabbani : Md. Rabbani
  4. nooruddinrasel@yahoo.com : nooruddin rasel : nooruddin rasel
  5. sultansumon2050@gmail.com : Sultan Sumon : Sultan Sumon
মঙ্গলবার, ১১ মে ২০২১, ১০:৪১ পূর্বাহ্ন

এশিয়ার শীর্ষ ১০০ বিজ্ঞানীর তালিকায় দেশি ৩ বিজ্ঞানীই নারী

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ২৮ এপ্রিল, ২০২১

রোকেয়া সরণি ডেস্ক

২০২০ সালের সেরা ১০০ এশিয়ান বিজ্ঞানীর তালিকা প্রকাশ করেছে সিঙ্গাপুরভিত্তিক বিজ্ঞান বিষয়ক ম্যাগাজিন এশিয়ান সায়েন্টিস্ট। সেই তালিকায় স্থান করে নিয়েছেন বাংলাদেশি তিন বিজ্ঞানী। আর তারা তিন জনই নারী। এই তিন বিজ্ঞানী হলেন— সালমা সুলতানা, ফেরদৌসী কাদরি ও সামিয়া সাবরিনা।

২০১৬ সাল থেকে বিজ্ঞানের বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখার জন্য প্রতিবছর এশিয়ার সেরা ১০০ মেধাবী গবেষকের তালিকা প্রকাশ করে আসছে এশিয়ান সায়েন্টিস্ট। এর আগে বাংলাদেশ থেকে ২০১৮ সালে দু’জন এবং ২০১৭ সালে একজন নারী বিজ্ঞানী এই তালিকায় স্থান পেয়েছিলেন। কাকতালীয়ভাবে সেই তিন জনও নারী।

বাংলাদেশ থেকে এ বছর এশিয়ান সায়েন্টিস্টের শীর্ষ ১০০ বিজ্ঞানীর তালিকায় স্থান পাওয়া সালমা সুলতানা বাংলাদেশ মডেল লাইভস্টক অ্যাডভান্সমেন্ট ফাউন্ডেশনে কর্মরত। তিনি বাংলাদেশের প্রান্তিক পর্যায়ের কৃষকদের সঙ্গে পশুচিকিৎসা সংক্রান্ত প্রচার, চিকিৎসা ও শিক্ষা নিয়ে কাজ করেন। এই কাজের জন্য ২০২০ সালে ওয়ার্ল্ড ফুড প্রাইজ ফাউন্ডেশনের সম্মানসূচক নরম্যান ই. বোরলাউগ পুরস্কার পান।

তালিকায় এরপর আছেন ফেরদৌসি কাদরি। তিনি আইসিসিডিডিআর,বি’তে কর্মরত একজন বিজ্ঞানী। উন্নয়নশীল দেশগুলোতে শিশুদের সংক্রামক রোগের বিস্তার সম্পর্কিত ধারণা তৈরি ও প্রতিরোধের পাশাপাশি প্রাথমিক রোগ নির্ণয় এবং বিশ্বব্যাপী ভ্যাকসিন প্রয়োগ নিয়ে কাজ করে থাকেন তিনি। কাজের স্বীকৃতি হিসেবে ২০২০ সালের ল’রিয়াল-ইউনেস্কো ফর উইমেন ইন সায়েন্স পুরস্কারে ভূষিত হন তিনি।

এশিয়ান সায়েন্টিস্টের শীর্ষ একশ বিজ্ঞানীর তালিকায় তৃতীয় বাংলাদেশি সামিয়া সাবরিনা। ন্যানোম্যাটেরিয়াল নিয়ে কাজ করে থাকেন বুয়েটের এই প্রকৌশলী। ন্যানোম্যাটেরিয়ালের বৈশিষ্ট্য ও ব্যবহার সম্পর্কিত গবেষণার জন্য উন্নয়নশীল বিশ্বের নারী বিজ্ঞানী হিসেবে ওডাব্লিউএসডি-এলসেভিয়ার ফাউন্ডেশন পুরস্কার পান সাবরিনা।

এর আগে, এই তালিকায় অন্য যে তিন বাংলাদেশি স্থান পেয়েছিলেন তারা হলেন ব্র্যাক বিশ্ববিদ্যালয়ের গণিত গবেষক হাসিবুন নাহার, প্রখ্যাত ধান বিজ্ঞানী বাংলাদেশ ধান গবেষণা প্রতিষ্ঠানের গবেষক প্রয়াত তমাল লতা আদিত্য এবং বুয়েটের তথ্যপ্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ তানজিমা হাশেম।

এশিয়ান সায়েন্টিস্ট বলছে, এই তালিকায় স্থান পাওয়ার অন্যতম শর্ত হলো— আগের বছরের গবেষণার জন্য গবেষকদের নিজ দেশে বা বিদেশে একটি হলেও পুরস্কার পেতে হবে। বিকল্প হিসেবে তাদের গুরুত্বপূর্ণ বৈজ্ঞানিক উদ্ভাবন বিজ্ঞানভিত্তিক শিক্ষা ও শিল্পে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখলে সেটিও বিবেচনা করা হয় বছরের সেরা বিজ্ঞানীর তালিকায় নাম অন্তর্ভুক্ত করার জন্য।

এশিয়ান সায়েন্টিস্টের এবারের তালিকায় চীন, ভারত, মালয়েশিয়া, সিঙ্গাপুর, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, ফিলিপাইন, হংকং, শ্রীলঙ্কা, ইন্দোনেশিয়া, থাইল্যান্ড ও ভিয়েতনামের বিজ্ঞানীদের উপস্থিতি বেশি দেখা গেছে। আর এ বছরের একশ জনের তালিকায় নারী বিজ্ঞানীর সংখ্যা ২৬।

More News Of This Category
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি