1. hmgrobbani@yahoo.com : admin :
  2. noushaduddin16@gmail.com : uddin : uddin uddin
  3. news@soroborno.com : Md. Rabbani : Md. Rabbani
  4. nooruddinrasel@yahoo.com : nooruddin rasel : nooruddin rasel
  5. sultansumon2050@gmail.com : Sultan Sumon : Sultan Sumon
মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৮:১৯ অপরাহ্ন

সালমান ‘অভদ্র ও অবিবেচক’, ধারণা আমিরের!

Reporter Name
  • Update Time : শনিবার, ৮ মে, ২০২১

এন্টারটেইনমেন্ট ডেস্ক

একজন বলিউডের প্রিয় ‘ভাইজান’, অন্যজন ‘মিঃ পারফেকশনিস্ট’। কিন্তু এই দুইজনের বন্ধুত্বের কথা বলিউড পাড়ায় সর্বজনবিদিত। বলা হয়ে থাকে, বলিউডে নাকি কেউ বন্ধু হয় না। বিশেষ করে বড় বড় তারকাদের মধ্যে তো নয়ই। সেখানে এই প্রবাদকে রীতিমতো তুড়ি মেরে হেলায় সরিয়ে দিয়েছেন বলিউডের দুই খান- সালমান ও আমির। এরা পরস্পরের ছবির প্রিমিয়ার হোক কিংবা ছোটপর্দায় শো, একাধিকবার একসঙ্গে হাজির হয়েছেন এই দুই বন্ধু। কিন্তু, প্রথম আলাপে সালমানকে নাকি একেবারেই পছন্দ হয়নি আমিরের। ‘ভাইজান’-কে রীতিমতো অভদ্র এবং অবিবেচক বলে মনে হয়েছিল ‘মিঃ পারফেকশনিস্ট’-এর। আর একথা নিজের মুখেই জানিয়েছিলেন আমির।

সালমান ‘অভদ্র ও অবিবেচক’, ধারণা আমিরের!
সালমান খান

বিখ্যাত কমেডি ছবি ‘আন্দাজ আপনা আপনা’ ছবির সেটে প্রথমবারের জন্য একসঙ্গে কাজ করেছিলেন আমির-সালমান। সেখানেই প্রথম আলাপ হয় তাদের। বিশেষ করে ছবিতে আমির ও সালমান অভিনীত ‘অমর’ ও ‘প্রেম’ চরিত্রদুটির রসায়ন দারুণ জনপ্রিয় হয়ে ওঠে দর্শকদের মাঝে। সেই ছবি ওই সময়ে সুপারহিট না হলেও পরবর্তী সময়ে দারুণ জনপ্রিয় হয়ে ওঠে।

সালমান ‘অভদ্র ও অবিবেচক’, ধারণা আমিরের!
আমির খান

কিন্তু সালমানকে অপছন্দ করার বিষয়টি প্রকাশ্যে আসে বছর কয়েক আগে ছোটপর্দার করণ জোহরের জনপ্রিয় শো ‘কফি উইদ করণ’-এ। এই শো-তে উপস্থিত হয়ে আমির সঞ্চালক করণকে সালমান প্রসঙ্গে জানান, ‘আন্দাজ আপনা আপনা ছবিতে সালমানের সঙ্গে কাজ করার অভিজ্ঞতা যথেষ্ট খারাপ। সেই সময়ে আমার ওকে একেবারেই ভালো লাগেনি। প্রচন্ড অভদ্র এবং একজন অবিবেচক মানুষ হিসেবেই মনে হয়েছিল তাকে।’

সালমান ‘অভদ্র ও অবিবেচক’, ধারণা আমিরের!
‘কফি উইদ করণ’-এ আমির খান ও করণ জোহর

তাহলে তাদের দু’জনের মধ্যে বন্ধুত্ব জমে উঠল কীভাবে? সে ব্যাপারেও আমির নিজেই জানান। তখন ২০০২ সাল। প্রথম স্ত্রীর রিমার সঙ্গে আমিরের বিবাহবিচ্ছেদ তখন দোরগড়ায় দাঁড়িয়ে। মদ্যপানের মাত্রা বেড়ে গেছিল আমিরের। শুরু হয়েছিল লাগামহীন জীবন। অবসাদে ডুবে যাচ্ছিলেন তিনি। এইসময়ে একদিন সালমান এসে হাজির হন তার কাছে। ওই কঠিন সময়ে পাশে দাঁড়ান তিনি। ‘বন্ধু’-র ভরসায় ধীরে ধীরে কঠিন সময় কাটিয়ে ওঠেন আমির। আমিরের কথায়, ‘আমরা আড্ডা দিতাম, পান করতে করতে নিজেদের সুখ-দুঃখের কথা আলোচনা করতাম। ধীরে ধীরে এভাবেই আমাদের মধ্যে সত্যিকারের বন্ধুত্ব গড়ে উঠল।’

More News Of This Category
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি