1. hmgrobbani@yahoo.com : admin :
  2. noushaduddin16@gmail.com : uddin : uddin uddin
  3. news@soroborno.com : Md. Rabbani : Md. Rabbani
  4. nooruddinrasel@yahoo.com : nooruddin rasel : nooruddin rasel
  5. sultansumon2050@gmail.com : Sultan Sumon : Sultan Sumon
মঙ্গলবার, ২২ জুন ২০২১, ০৮:২৪ অপরাহ্ন

ইসরাইলি আরবদের বিক্ষোভ, জরুরি অবস্থা জারি

Reporter Name
  • Update Time : বুধবার, ১২ মে, ২০২১

আন্তর্জাতিক ডেস্ক

ইসরাইলের লোড শহরে জরুরি অবস্থা জারি করেছে দেশটির প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু। মঙ্গলবার (১১ মে) রাতে শহরটিতে বসবাসরত ইসরাইলি আরবদের বিক্ষোভ সংঘর্ষে রূপ নিলে জরুরি অবস্থা ঘোষণা করেন তিনি। মূলত ইসরাইলের সেনাবাহিনী ও ফিলিস্তিনের স্বাধীনতাকামী সংগঠন হামাসের চলমান হামলার মধ্যেই এ ঘটনা ঘটলো।

বিবিসি’র প্রতিবেদনে বলা হয়, মঙ্গলবার দেশটির রাজধানী তেল আবিবের পার্শ্ববর্তী শহর লোডে বিক্ষোভ করে ইসরাইলি আরবরা। পরে এই বিক্ষোভ দ্রুতই সংঘর্ষে রূপ নেয়। তারা পুলিশকে লক্ষ্য করে পাথর নিক্ষেপ করে। এ সময় পুলিশ বিক্ষোভকারীদের প্রতি গ্রেনেড ছোড়ে।

ইসরাইলি আরব এক ব্যক্তির মৃতদেহ দাফনের পর এই বিক্ষোভ শুরু হয়। ইসরাইল ও ফিলিস্তিনির চলমান হামলায় গত সোমবার ওই ব্যক্তি নিহত হয়। লোড শহরের পুলিশ জানিয়েছে, এই সংঘর্ষে অন্তত ১২ জন আহত হয়েছে। তবে রাত বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে পরিস্থিতি স্বাভাবিক হয়েছে।

এদিকে টাইমস অব ইসরাইল জানিয়েছে, বুধবার (১২ মে) সকালে হামাসের রকেট হামলায় ৫২ বছর বয়সী এক ইসরাইলি আরব ব্যক্তি এবং তার ১৬ বছরের মেয়ে নিহত হয়েছেন। এ সময় তার স্ত্রী গুরুতর আহত হয়। তারা ব্যক্তিগত গাড়ি করে যাওয়ার সময় রকেটটি আঘাত হানে। এতে ঘটনাস্থলেই বাবা-কন্যা নিহত হন।

ওই প্রতিবেদনে আরও বলা হয়, ইহুদিদের ধর্মীয় প্রতিষ্ঠান সিনাগগ এবং বেশকিছু ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে অগ্নিকাণ্ডের ঘটনা ঘটেছে। তবে আন্তর্জাতিক বার্তা সংস্থা রয়টার্স জানিয়েছে, তারা ইহুদিদের দ্বারা একটি ব্যক্তিগত গাড়িতে পাথর ছুড়ে মারার খবর পেয়েছে, যা একজন ইসরাইলি আরব চালাচ্ছিলেন। বিজ্ঞাপন

লডের মেয়র ইয়ার রিভিয়েভো টাইমস অব ইসরাইল’কে বলেন, ‘এ বিষয়ে সকল ইসরাইলিদের জানা উচিত। এটা নিয়ন্ত্রণহীন ক্ষতি। লডে এক প্রকার গৃহযুদ্ধ শুরু হয়েছে।’

মঙ্গলবার রাতে বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু জরুরি অবস্থা ঘোষণা করার পর লোড শহরে সীমান্ত পুলিশ মোতায়েন করেন। দেশটির পশ্চিত তীর থেকে এসব সীমান্ত পুলিশ নিয়ে আসা হয়।

১৯৬৬ সালের পর এই প্রথম দেশটিতে বসবাসরত আরবদের ওপর জরুরি অবস্থা জারি করা হয়েছে বলে টাইমস অব ইসরাইল’র প্রতিবেদনে বলা হয়।

ইসরাইল ও ফিলিস্তিনের মধ্যে চলমান হামলার ঘটনা দেশটির অভ্যন্তরে বসবাসরত সংখ্যালঘু আরবদের মধ্যে উত্তেজনা তৈরি করেছে। যার ফলে লোডে এই বিক্ষোভ দেখা দিয়েছে। এছাড়াও ইসরাইলের পূর্ব জেরুজালেম ও পশ্চিম তীরের বিভিন্ন শহরেও বিক্ষোভ দেখা দিয়েছে, যেখানে অধিক সংখ্যায় আরবরা বসবাস করেন।

More News Of This Category
© সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত। এই ওয়েবসাইটের কোন লেখা, ছবি, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি